Sun. May 26th, 2024

ঋত্বিক চক্রবর্তী অভিনীত ছবি ‘টেকো’ ইউটিউব ট্রেন্ডিং এ ১ নম্বর পজিশনে রয়েছে

By Desk Team Oct 21, 2019

Warning: Attempt to read property "post_excerpt" on null in /home/u826462476/domains/tbhbangla.com/public_html/wp-content/themes/newsair/single.php on line 84

ঋত্বিক চক্রবর্তী অভিনীত ছবি ‘টেকো’ ইউটিউব ট্রেন্ডিং এ নম্বর পজিশনে রয়েছে। টেকো ছবিটির ট্রেলার মুক্তি পাওয়ার কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই এই ছবিটি ইউটিউব ট্রেন্ডিং এক নম্বর পজিশনে পৌঁছে গেছে।টলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে এই সময় যদি হিট মেশিন বলে কেউ থাকে সেটি হলেন এক এবং অদ্বিতীয় ঋত্বিক চক্রবর্তী। তিনি যে ক’টি চরিত্রে অভিনয় করেছেন সব ক’টি চরিত্র বাণিজ্যিকভাবে এবং সমালোচকদের কাছে দারুণভাবে সফল ও প্রশংসিত হয়েছে। তার আগামী ছবি টেকো ট্রেইলারে যে ধরনের অভিনয় দক্ষতা দেখিয়েছেন এক কথায় তিনি আসলে মানুষের মন জয় করে চলে গেলেন।ঋত্বিক চক্রবর্তী অভিনীত টেকো ছবিটির ট্রেলার মুক্তি পেয়েছে। এই ছবিটিতে প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন ঋত্বিক চক্রবর্তী এবং শ্রাবন্তী চ্যাটার্জী। এই ছবিটিতে অন্যান্য চরিত্রে অভিনয় করেছেন কাঞ্চন মল্লিক সুদেষ্ণা রায় অভিজিৎ গুহ মানসী সিনহা বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য অরিত্র দত্ত বণিক। এই ছবিটি পরিচালনা করেছেন ‘নুরজাহান’ এবং ‘পিয়া রে’ খ্যাত পরিচালক অভিমুন্য মুখার্জি। অভিমুন্য মুখার্জি রাজ চক্রবর্তীর একাধিক ছবিতে সহ পরিচালনা করেছেন। এই ছবিটির সম্পাদনা করেছেন রবিরঞ্জন মৈত্র। এই ছবিটির সংগীত পরিচালনা করেছেন স‍্যাভি। এই ছবিটির গান লিখেছেন ঋতম সেন। এই ছবিটির প্রযোজনা করেছেন সুরিন্দর ফিলমস প্রাইভেট লিমিটেড এর কর্ণধার নিসপাল সিং। এই ছবিটির গল্প অলকেশ এবং মিনার। অলকেশের চরিত্রে অভিনয় করেছেন ঋত্বিক চক্রবর্তী এবং মীনার চরিত্রে অভিনয় করেছেন শ্রাবন্তী চ্যাটার্জী। মিনার বরাবরই দীর্ঘ ও ঘন কেশওয়ালা পাত্র পছন্দ তাই যে সরকারি কর্মচারী অলকেশ কে বিয়ে করে যার ঘনকালো চুল ছিল। কিন্তু বিয়ে করার বেশ কিছুদিন পর থেকে তাদের বৈবাহিক সম্পর্কের অবনতি ঘটতে থাকে ওই চুলের কারণেই। অলকেশ একটি বিশেষ তেল ব্যবহার করার ফলে তার মাথার সমস্ত চুল প্রায় ঝরতে শুরু করে এবং তার মাথায় টাক দেখা যায়। বিজ্ঞাপনী চট্টোপাধ্যায় প্রতারিত হয়ে অলকেশ বৈবাহিক সম্পর্ক একেবারে তলানিতে এসে ঠেকেছে এমন সময় স্ত্রীকে হারানোর ভয় এবং তার চুলের এই অবস্থার প্রতিকূল পরিস্থিতি থেকে তিনি কীভাবে মোকাবিলা করেন এই ছবিটির মধ্যে দেখা যাবে। এই ছবিটিতে বিভিন্ন বিজ্ঞাপনে প্রতারিত হয়ে মানুষ কিভাবে নিজের ত্বক ও চুলের ক্ষতি করে তা দেখানো হয়েছে। এই ছবিটিতে অলকেশ ওই তেল প্রস্তুতকারক কোম্পানির নামে মামলা করে তার এই করুণ অবস্থার জন্য। আমরা প্রায়ই দেখি এবং শুনি বিজ্ঞাপনের চটক কথায় বহু সাধারণ মানুষ প্রতিদিন প্রতারিত হচ্ছেন। এই ছবিটির মধ্যে দিয়ে তাদের বার্তা পরিচালক মানুষের সামনে তুলে ধরবেন। বহু সাধারণ মানুষ চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়াই বহু ক্রিম, তেল ও সাজ-সজ্জার বহু জিনিস ব্যবহার করে থাকেন কিন্তু সেগুলি তাদের অনেক সময় ক্ষতির কারণ হয়ে দাঁড়ায়। এই ছবিটির মধ্যে দিয়ে এই বিষয়টি বিশেষ গুরুত্বের সঙ্গে দেখানো হয়েছে। অনেকেই এই ছবিটিকে ‘বালা’,’উজরা চমন’ ছবিটির নকল বা কপি বলা হয়েছে। এই ছবিটি কোন ছবির নকল বা রিমিক নয়। বালা ছবিটির বিষয়ে ভিন্ন এবং টেকো ছবিটির বিষয়ও সম্পূর্ণ ভিন্ন। এই ছবিটিতে অলকেশের ঘন চুল ছিল কিন্তু বিশেষ প্রোডাক্ট ব্যবহার করার ফলে তার চুল ঝরে যায় এবং অকালে তার মাথায় টাক পড়ে। এরপর সেই প্রস্তুতকারক সংস্থা বিরুদ্ধে মামলা করে এবং এই চুল ঝরে পড়ার ফলে অলকেশের সঙ্গে মীনার বিবাহবিচ্ছেদের পরিস্থিতি এসে দাঁড়ায়। বালা ছবিটির গল্প ভিন্ন। বালা ছবিটিতে আয়ুষ্মানের শুরু থেকেই মাথায় টাক ছিল এবং এই থাকার কারণে তারা কারো সঙ্গেই বিয়ে হচ্ছিল না তাই সে নানা প্রকাশ করে পরচুলা লাগিয়ে ও নানা ক্রিম তেল ব্যবহার করে চুল গজানোর চেষ্টা করে এবং সবশেষে সে কি বিয়ে করতে পারে তা এই ছবিটির গল্প। তাহলে বুঝতেই পারছেন দুটি ছবির মধ্যে অনেক তফাৎ রয়েছে আর বালা ছবিটির শুটিং ২০১৯ এ শুরু হয়েছে এবং টেকো ছবিটির শুটিং ২০১৮ তে শেষ হয়ে গেছে। আগামী ২২ শে নভেম্বর মুক্তি পাচ্ছে টেকো। দর্শকদের কাছে অনুরোধ এই ধরনের কনটেন্ট নির্ভর ছবি আপনারা অবশ্যই হলে গিয়ে দেখুন এবং এই ছবিটি কোনমতেই ‘বালা’বা ‘উজরা চমন’ ছবির নকল নয় সম্পূর্ণ মৌলিক চিত্রনাট্যের নির্মাণ এই ছবিটি বালা এবং ‘উজরা চমন’ এর বহু আগে নির্মিত হয়েছে। এই ছবিটির কনটেন্ট সমসাময়িক এবং যথেষ্ট প্রাসঙ্গিক তাই প্রত্যেকের কাছে অনুরোধ এই ছবিটির অবশ্যই একবার প্রেক্ষাগৃহে গিয়ে দেখবেন।

Related Post

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *