শুক্রবার আনলক হল ‘হরর স্টোরি’

শুক্রবার আনলক হল ‘হরর স্টোরি’

ভূতের গল্পের মানেই গা ছমছম পরিবেশ, একটু করে গায়ে কাঁটা দেওয়া, আর মনের মধ্যে ভয়ের বাঁসা বাঁধা। আর এবারে এই সব কিছু নিয়েই হাজির হলেন পরিচালক সায়ন বসু। ২০২১ সালের আনলক পর্যায়ে রুপোলি পর্দায় মুক্তি পেয়ে গেল পান্ডে মোশন পিকচার্স নিবেদিত নতুন বাংলা সিনেমা “হরর স্টোরিস।”

সিনেমাটি প্রযোজনা করেছেন মুকেশ কুমার পান্ডে। এই সিনেমাতে মুখ্য চরিত্র গুলিতে অভিনয় করেছেন রূপসা মুখোপাধ্যায়, মৈনাক ব্যানার্জী এবং অলিভিয়া সরকার এছাড়াও রয়েছেন সুপ্রতিম সাহা, প্রিয়াঙ্কা ব্যানার্জি আরও অনেকে। সিনেমাটি মুক্তি পেয়েছে ১৩ই আগস্ট তারিখে। বাংলাতে এমনিতেই ভূতের সিনেমার সংখ্যা খুবই কম, তাই এই সময় সকল সাবধানতা মেনে এই সিনেমা দেখতে গেলে দর্শক যেমন মজা করবেন তেমনই ভয় পাবেন বলা যেতে পারে।

সিনেমার শুরুটা হয় সাদা কালো চিত্র দিয়ে, সেখান থেকেই শুরু এক লেখকের গল্পের। সেই গল্প খানিক দেখিয়েই পরিচালক তার বাকি রহস্যের ভার দিয়ে দেন দর্শকের উপর। তারপর একটি গাড়িতে দেখা হয় দুজনের, সেখানে তারা ঠিক করেন ভূতের গল্প নিয়েই রাস্তাটা কাটাবে। আর তারপরেই শুরু হয় এক কাহিনী। যেখানে গল্প দেখানো হয় অনন্যা এবং রাজ এর। গল্পে দেখানো হয় অনন্যা নিজের জীবন নিয়ে খুব একটা সুখী নয় আর এর পরেই ঘটনাচক্রে তার হাতে এসে পড়ে একটি বক্স। সেই বক্সের প্রথমটা লেখা ছিল চাইনিজ ভাষায়, সেখানে এমন কিছু লেখা থাকে যা দেখে মনে হয় অনন্যা তার জীবনকে পাল্টাতে পারবে, আর সেখান থেকেই ঘটে যায় দূর্ঘটনা।

এরপরেই শুরু হয় এক নতুন গল্প, অন্তরা এবং প্রদ্যুত এর। এই কাহিনীতে প্রথমে তারা বস এবং কর্মচারীর ভূমিকাতে থাকলেও পরে স্বামী-স্ত্রীর বন্ধনে আবদ্ধ হয়। কিন্তু বিয়ের পরেই অন্তরার কাছে প্রদ্যুৎ হয়ে ওঠে একজন অচেনা মানুষ। আর সেই থেকেই আবারও এক রহস্যের মোড়। কাহিনীর শেষে পরিচালক রেখেছেন একদম অন্য চমক। সিনেমার সাউন্ড এবং ফটোগ্রাফিও হয়েছে যথার্থ। এই গোটা সিনেমাতে রয়েছে একটি মিষ্টি গান, প্রশমিতা পাল এবং সায়ক নাগের। সুতরাং এত কিছু হাত ছাড়া বোধ হয় করা যায় না। আর প্রত্যেকটি গল্পের শেষে রহস্য কোন দিকে মোড় নিচ্ছে তার জন্যে অবশ্যই দর্শকদেরকে ঢুঁ মারতে হবে সিনেমা হলে। তাই আর দেরী না করে দেখে আসুন পরিচালক সায়ন বসুর “হরর স্টোরিস”।

One thought on “শুক্রবার আনলক হল ‘হরর স্টোরি’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back To Top