Sun. May 26th, 2024

পরিচালক সায়ন বসু চৌধুরীর ছবি ‘হরর স্টোরিজ’এর টিজার খুব শীঘ্রই মুক্তি পাবে।

By Desk Team Jul 8, 2021

আপনি কি ভূতের গল্প শুনতে বা দেখতে পছন্দ করেন? নাকি আপনার কাছে ভুতের থেকে হরর এলিমেন্ট আরো বেশি প্রিয়। আপনি যদি চিরাচরিত ভুতের ছবি না দেখে হরর এলিমেন্ট মেশানো ছবি দেখতে চান তাহলে খুব শীঘ্রই আপনি তা দেখতে পাবেন পরিচালক সায়ন বসু’র আগামী ছবি ‘ হরর স্টোরিজ’এ।

এই ছবিটির টিজার খুব শীঘ্রই মুক্তি পাবে।

‘হরর স্টোরিজ’ ছবির সেটের একটি দৃশ্য।


দুটি গল্প নিয়ে এই ছবিটি নির্মিত হয়েছে। ছবিতে প্রথমার্ধে একটি গল্প এবং দ্বিতীয়ার্ধে একটি গল্প। প্রথমার্ধের গল্পটির নাম ‘চাইনিজ বক্স’। এই গল্পটিতে প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন অলিভিয়া সরকার এবং সুপ্রতিম সাহা।প্রথমার্ধের গল্পটি অনন্যা (অলিভিয়া সরকার) নামে একটি মেয়ের, সে ছোটবেলা থেকেই অনেক কিছু পাইনি এবং অনেক কিছু পাওয়ার স্বপ্ন দেখে। অনন্যা একটি চাইনিজ বক্স পায় এবং সে চাইনিজ বক্সের একটি অদ্ভুত শক্তি ছিল। মেয়েটি চাইনিজ বক্স এর কাছে যা যা চাইতো সে তাই তাই পেত, এইভাবে ধীরে ধীরে মেয়েটির চাওয়ার আকাঙ্ক্ষা বাড়তে বাড়তে কোন পর্যায়ে গিয়ে পৌঁছায় এই ছবিটির মধ্য দিয়ে দেখতে পাবেন।

‘হরর স্টোরিজ’ ছবির সেটে পরিচালক সায়ন বসুচৌধুরী অভিনেতা মৈনাক ব্যানার্জী এবং অভিনেত্রী রুপসা মুখোপাধ্যায়।


দ্বিতীয় গল্পটির নাম ভূত। এই গল্পটির মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করেছেন রুপসা মুখোপাধ্যায় এবং মৈনাক ব্যানার্জী।দ্বিতীয় গল্পটি হলো অমৃতা(রুপসা মুখোপাধ্যায় চরিত্রটিতে অভিনয় করেছেন) নামের একটি মেয়ের যে ছোটবেলা থেকেই একটি ভূত দেখতে পায়। মেয়েটির ছোটবেলায় একটি খারাপ ঘটনা ঘটে এবং তারপর থেকে সে যে কোনো ধরনের ভালোবাসার সম্পর্ক থেকে অনেক দূরে থাকে এবং সে কারো সাথে সম্পর্কে জড়ায় না। তার অফিসের বস প্রদ্যুৎ(মৈনাক ব্যানার্জী এই চরিত্রটিতে অভিনয় করেছেন) এর সঙ্গে তার ভালোবাসার সম্পর্ক হয় এবং প্রদ্যুৎ তাকে বিয়ে করে। বিয়ের পর থেকেই শুরু হয় যাবতীয় বিপত্তি। অমৃতার একটি বিশেষ ক্ষমতা ছিল সে কোন খারাপ ঘটনা ঘটার আগে আগে থেকে বুঝতে পারত।সে কি খারাপ ঘটনার সম্মুখীন হয়েছিল? কার সাথে ভুতের কোন আদৌ কোন সাদৃশ্য আছে কিনা জানতে হলে আমাদের অপেক্ষা করতেই হবে এই ছবিটির মুক্তির দিন পর্যন্ত।

‘হরর স্টোরিজ’ ছবির একটি দৃশ্যে অভিনয়রত অভিনেত্রী রুপসা মুখোপাধ্যায়।


এই ছবিটির অন্যান্য চরিত্রে অভিনয় করেছেন সুরজিৎ মাইতি, রোশনী ঘোষ, প্রিয়াংকা ব্যানার্জী, শুভজিৎ অদগিরি, সমৃদ্ধ ঘোষ, অনুষ্কা ঘোষ।
এই ছবিটির কাহিনী এবং চিত্রনাট্য লিখেছেন পরিচালক সায়ন বসুচৌধুরী নিজেই।
এই ছবিটির প্রযোজনা করেছেন ‘পান্ডে মোশন পিকচার্স’এর কর্ণধার শ্রী মুকেশ পান্ডে।
এবি ছবিটির ক্যামেরা দায়িত্ব সামলেছেন রফিকুল ইসলাম।
এই ছবিটির সঙ্গীত এবং আবহ সংগীত পরিচালনা করেছেন সায়ক নাগ। গায়িকা প্রস্মিতা পাল এই ছবিতে একটি গান গেয়েছেন।
এই ছবিটির অনলাইন মিউজিক স্ট্রিমিং পার্টনার আমারা মিউজিক।

Related Post

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *