Wed. Apr 24th, 2024

“আমার গানের ক্ষেত্রে আমার দিদি এবং ঠাকুমার অনেক অবদান রয়েছে” : প্রস্মিতা পাল।

By Desk Team Jul 14, 2021

‘সাজনা’, ‘পারবোনা’, ‘আসোনা’, ‘হতে পারে না’, ‘তোমায় নিয়েই গল্প হোক’, ‘সজনি সজনি’ , ‘ফুরফুর’, এই গানগুলি আপনারা অবশ্যই শুনেছেন, ঠিক ধরেছেন আজ আমরা কথা বলবো জনপ্রিয় গায়িকা প্রস্মিতা পাল এর সম্বন্ধে।
প্রস্মিতা খুব ছোটবেলায় যখন তার বয়স ৩ অথবা ৪ বছর তখন থেকেই তার দিদির কাছ থেকে গান শেখা শুরু করেন। তার দিদি খুবই সুন্দর রবীন্দ্রসঙ্গীত গাইতেন এবং তাকেও রবীন্দ্র সংগীত শেখাতেন। প্রস্মিতার ঠাকুমার উদ্যোগে তার শাস্ত্রীয় সংগীত শেখা শুরু হয়। তার দিদিমা খুব সুন্দর গান গাইতেন এবং তিনি এফএম রেডিওতে গান গাইতেন।

প্রস্মিতা পাল একটি শ্যোতে পারফর্মরত।


স্কুল এবং কলেজ জীবনে প্রস্মিতা প্রচুর পারফর্ম করতেন এবং এই পারফর্ম করতে করতে গান তার মধ্যে আত্মস্থ হয়েছে এবং গানের প্রতি তাঁর প্রচন্ড ভালোবাসা জন্মায়। যখন ক্লাস টুয়েলভে পড়েন তখন তিনি প্রথম প্রফেশনাল পারফরম্যান্স করেছিলেন।
২০১২ সালে জনপ্রিয় পরিচালক রাজ চক্রবর্তীর ছবি ‘বোঝেনা সে বোঝেনা’ তে প্রথম ব্রেক পান। এই গানটি নামছিল ‘সাজনা’ এবং সঙ্গীত পরিচালনা করেছিলেন অরিন্দম চ্যাটার্জী। ক্যারিয়ারের প্রথম গানটি অত্যন্ত দক্ষতার সঙ্গে তিনি গেয়েছিলেন এবং এই গানটি খুবই জনপ্রিয় হয়। এরপর একে একে ‘বরবাদ’ ছবিতে ‘পারবোনা’, ‘আসনা’ , ‘নাকাব’ ছবির ‘তোর হতে চাই’, ‘বলো দুগ্গা মাইকি’ ছবির ‘হতে পারে না’, ‘কাঠমুন্ডু’ ছবির ‘মন আমার’, ‘গুগলি’ ছবির ‘টিনটিন’, হাইওয়ে ছবির ‘তোমায় নিয়েই গল্প হোক’, ‘মানভঞ্জন’ ছবির ‘সাজনা সাজনি’ এরকম অসংখ্য গান গেয়েছেন।

ছবিতে প্রস্মিতা পাল।


শুধু ছবি নয় ‘কি করে বলবো তোমায়’, ‘অপরাজিতা অপু’, ‘ওগো নিরুপমা’, ‘বধূবরণ’, ‘রাই কিশোরী’ মেগাসিরিয়ালেও তিনি গান গেয়েছেন। বর্তমানে জনপ্রিয় মেগা সিরিয়াল মিঠাই এর টাইটেল ট্রাকটি তিনি গেয়েছেন এবং এই গানটি খুবই জনপ্রিয় দর্শক শ্রোতাদের কাছে।
বর্তমানে প্রস্মিতা শ্রীমতি কল্পিতা রায়ের কাছে শাস্ত্রীয় সঙ্গীতের তালিম নিচ্ছেন। তিনি ক্যালকাটা স্কুল অফ মিউজিকের শিক্ষকের কাছ থেকে নাইলন স্ট্রিং গিটার বাজানো শিখেছেন।
শাস্ত্রীয় সংগীতের অধ্যায়নের ব্যাপারে জানতে চাওয়া হলে তিনি জানান যারা নিজেদের ভোকালিস্ট হিসেবে গণ্য করেন তাদের অবশ্যই শাস্ত্রীয় সঙ্গীত শেখা উচিত। অনেকেই শাস্ত্রীয় সংগীত না শিখে খুব সুন্দর প্লেব্যাক করেছেন কিন্তু পরে তাদের ভোকাল ট্রেনিং নিতে হয়েছে। ক্লাসিক্যাল ট্রেনিং হচ্ছে গলার কর্ডগুলিকে সচল রাখার একটি অভ্যাস, এটি গানের গলাকে সুন্দর রাখতে এবং দীর্ঘদিন পর্যন্ত সুরে গান গাইতে অনেকটা সাহায্য করে। তাই শাস্ত্রীয় সংগীতের রেওয়াজ ও অনুশীলন এবং ভোকাল ট্রেনিং নেওয়াটা অবশ্যই জরুরি নিজের জন্য, নিজের গলা কে ভালো রাখার জন্য।

গিটার হাতে প্রস্মিতা পাল।


তার ভবিষ্যৎ প্রজেক্ট সম্পর্কে জানতে চাওয়া হলে তিনি জানান পরিচালক সায়ন বসুচৌধুরীর আগামী ছবি ‘হরর স্টোরিজ’ এ তিনি একটি মিষ্টি রোমান্টিক গান গাইছেন এবং এটি তার দ্বিতীয় লকডাউন এর পর প্রথম কাজ তাই তিনি এই কাজটি নিয়ে যথেষ্ট আশাবাদী। এছাড়াও শিবপ্রসাদ মুখোপাধ্যায় এবং নন্দিতা রায় পরিচালিত ‘বেলাশুরু’ ছবিটিতে তিনি একটি গান গেয়েছেন এছাড়াও বেশ কয়েকটি ছবিতে তিনি গান গেয়েছেন তবে প্যানডেমিক এর জন্য সেগুলি এখন পিছিয়ে গেছে। এছাড়াও তিনি তার নিজস্ব ইউটিউব চ্যানেল থেকে বেশ কিছু গান নিয়ে আসতে চলেছেন। ‘মাঝে মাঝে তব’ গানটির সাফল্যের পর তিনি দুটি রবীন্দ্র সংগীত নিয়ে খুব শীঘ্রই আসতে চলেছেন। তার মধ্যে একটি গান পুজোর আগেই মুক্তি পাওয়ার সম্ভাবনা আছে। তিনি তার এতদিন ধরে গাওয়া সমস্ত ছবির গানগুলোকে পুনরায় রিক্রিয়েট করে একটি অ্যালবামে আনতে চলেছেন যেটি খুব সম্ভবত ইউটিউবে তার ইউটিউব চ্যানেল থেকে মুক্তি পাবে।

Related Post

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *